অন্য ভাষায় :
বৃহস্পতিবার, ০৬:১২ পূর্বাহ্ন, ২০ জুন ২০২৪, ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
মানব সেবায় নিয়োজিত অলাভজনক সেবা প্রদানকারী সংবাদ তথ্য প্রতিষ্ঠান।

মৃত্যুর পথে এক দিনের ক্রিকেট!

সময়ের কণ্ঠধ্বনি ডেস্ক:
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৩ জুলাই, ২০২২
  • ৮১ বার পঠিত

এক দিনের ক্রিকেটের ভবিষ্যত নিয়ে সংশয় প্রকাশ করলেন অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটার উসমান খাজা। তার দাবি, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের দাপটে ধীরে ধীরে শেষ হয়ে যাচ্ছে এক দিনের ক্রিকেট।

সব দেশেই এখন ২০ ওভারের ক্রিকেটের লিগ হচ্ছে। আইপিএল, বিগ ব্যাশের মতো প্রতিযোগিতাগুলোতেই ক্রিকেট বোর্ডগুলোর আগ্রহ বেশি। ওয়াসিম আকরামের মতো সাবেক ক্রিকেটার তো সরাসরি বলে দিয়েছেন, এক দিনের ক্রিকেট মানে সময় নষ্ট। আন্তর্জাতিক সূচি থেকেও এক দিনের ক্রিকেটকে বাদ দেয়ার পক্ষে আকরাম। কয়েক দিন আগেই বেন স্টোকস এক দিনের ক্রিকেট থেকে অবসর নেন। অতিরিক্ত ক্রিকেট নিয়ে বিরক্তি প্রকাশ করে মন্তব্য করেন, ‘গাড়ি নই যে তেল ঢাললেই চলব।’ খাজাও মনে করেন, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের চাপে ক্রমশ মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে ৫০ ওভারের ক্রিকেট।

খোয়াজা বলেছেন, ‘ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, এক দিনের ক্রিকেট ক্রমশ মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বকাপ হয়। আমার মতে ওটা একটা মজা। দেখতে বেশ ভালো লাগে। কিন্তু ব্যক্তিগতভাবে আমিও বোধহয় এক দিনের ক্রিকেট খুব বেশি খেলতে আগ্রহী নই।’ উল্লেখ্য, ২০১৩ সাল থেকে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ৪০ এক দিনের ম্যাচ খেলেছেন খাজা।

অজি ব্যাটার আরো বলেছেন, ‘আমার মনে হয় না এই মুহূর্তে এক দিনের ক্রিকেটের কোনো গুরুত্ব রয়েছে। কারণ সামনেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। কিছু একটা ছাড়তেই হবে। কারণ, তিন ধরনের ক্রিকেট একসাথে চালিয়ে যাওয়া খুব কঠিন। আপনাকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে এবং বেছে নিতে হবে কোন ধরনের ক্রিকেট খেলতে চান।’ খাজা বলেছেন, ‘টেস্ট ক্রিকেট রয়েছে। সেটাই সেরা মানের ক্রিকেট। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট এসে গেছে। গোটা বিশ্বে ২০ ওভারের লিগ চলছে। এই লিগগুলোয় ভরপুর বিনোদন রয়েছে। সকলেই পছন্দ করছে। তার পরে আসছে এক দিনের ক্রিকেট। পছন্দের নিরিখে যা এখন তৃতীয় স্থানে চলে গেছে।’

তিন ধরনের ক্রিকেট একসাথে চালাতে সমস্যা কী? খাজা বলেছেন, ‘সম্ভব নয়। খুব কঠিন। প্রচুর সফর করতে হচ্ছে। তিন ধরনের ক্রিকেটই খেলতে হলে বাড়িতে থাকার কোনো সময়ই পাওয়া যাবে না। প্রচুর ক্রিকেট হচ্ছে। তাই বেছে নেয়া ছাড়া উপায় নেই। যে ধরনের ক্রিকেট খেলব, সেটা গুরুত্ব দিয়েই খেলা উচিত।’

এই প্রসঙ্গেই নিজের দেশের বিগ ব্যাশ লিগের ভবিষ্যত নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন খোয়াজা। তার মতে, টি-টোয়েন্টি লিগগুলোর মধ্যে টিকে থাকতে হলে বিগ ব্যাশ লিগের বেসরকারিকরণ প্রয়োজন। কারণ আইপিএলের পর দক্ষিণ আফ্রিকা এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের টি-টোয়েন্টি লিগও টাকার থলি নিয়ে মাঠে নামতে চলেছে। খাজা বলেছেন, ‘বিগ ব্যাশে যাতে বিদেশের সেরা প্রতিভারা খেলে তা ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে নিশ্চিত করতে হবে। না হলে আগামী কয়েক বছরেই এই প্রতিযোগিতা আকর্ষণ হারাতে পারে।’

বিগ ব্যাশের সময় নিয়েও উদ্বিগ্ন খাজা। বলেছেন, ‘দুই বিদেশী ক্রিকেটারের সাথে কথা বলে দেখেছি। ওরা বিগ ব্যাশ খেলতে চায় না। সে সময় ওরা পরিবারের সাথে বড়দিনের ছুটি কাটাতে চায়। ছুটির পর আমিরাতে লিগে খেলতে আগ্রহী ওরা।’
সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2021 SomoyerKonthodhoni
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com