অন্য ভাষায় :
শুক্রবার, ১১:৫৮ পূর্বাহ্ন, ২১ জুন ২০২৪, ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
মানব সেবায় নিয়োজিত অলাভজনক সেবা প্রদানকারী সংবাদ তথ্য প্রতিষ্ঠান।

কে হচ্ছেন ফজলে রাব্বীর উত্তরসূরি

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৩১ জুলাই, ২০২২
  • ৮৯ বার পঠিত

সদ্য প্রয়াত ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়ার আসনটি গত ২৪ জুলাই শূন্য ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সংসদ সচিবালয়। নিয়মানুযায়ী গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনে আগামী ৯০ দিনের মধ্যে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও বিভিন্ন চায়ের দোকানে এবং আড্ডাখানায় শুরু হয়েছে এ নিয়ে জল্পনা-কল্পনা। কে হচ্ছেন নৌকার কাণ্ডারি? কে পাচ্ছেন দলীয় মনোনয়ন? এ নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা চলছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ও মানুষের জল্পনাকল্পনা এবং আওয়ামী লীগ নেতাদের আলোচনা সূত্রে জানা যায়, গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী ৩ জন। তারা হলেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন, ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিএম সেলিম পারভেজ ও সদ্য প্রয়াত অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়ার মেয়ে ফারজানা রাব্বী বুবলী।

জানা যায়, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন বর্তমানে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। পাশাপাশি নির্বাচনী এলাকায় দীর্ঘদিন থেকে বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মসূচিতে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছেন। এ ছাড়া তিনি সাঘাটা-ফুলছড়ি উপজেলায় দীর্ঘদিন ধরে তৃণমূল নেতাকর্মীদের সঙ্গে মিছিল মিটিং সমাবেশ করে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন।

এদিকে ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিএম সেলিম পারভেজ তিনিও মনোনয়নপ্রত্যাশী। তিনি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের দুবার সাধারণ স¤পাদক ও দ্বিতীয়বারের মতো ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তিনি।

অপরদিকে, ফারজানা রাব্বী বুবলী ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, তার স্বামী বিচারপতি খুরশীদ আলম সরকার। ফজলে রাব্বী মিয়ার মেয়ে হিসেবে তিনি বাবার উত্তরাধিকার দাবি করছেন বলে জানা গেছে।

আরিফ মিয়া নামে একজন ফেসবুকে লিখেছেন, দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন, ১/১১ দুঃসময়ের কাণ্ডারি, দেশরত্ন শেখ হাসিনা ও গণতন্ত্র মুক্তির অগ্রনায়ক, তৎকালীন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন যিনি আজ স্বমহিমায় সাঘাটা-ফুলছড়িতে অতীতের সব নেতাকে সঙ্গে নিয়ে জনপ্রিয়তায় শীর্ষে রয়েছেন।

ফুলছড়ির আওয়ামী লীগ নেতা আসাদুজ্জামান বাদশা বলেন, দীর্ঘদিন থেকে ফুলছড়ি-সাঘাটার আওয়ামী লীগকে আগলে রেখেছেন মাহমুদ হাসান রিপন। উপনির্বাচনে একজন ত্যাগী নেতা হিসেবে মাহমুদ হাসান রিপন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাবেন। তার প্রচুর জনসমর্থন রয়েছে। তাই তাকে মনোনয়ন দিলে নৌকা মার্কার বিজয় নিশ্চিত।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিএম সেলিম পারভেজ বলেন, আমি দীর্ঘদিন থেকে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি। এর আগেও আমি দুবার দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেছিলাম। এবারের উপনির্বাচনে আমি দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করব। আশা করছি মনোনয়ন পাব। আমাকে নৌকা প্রতীক দিলে আমার বিজয় নিশ্চিত।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আওয়ামী লীগের এক নেতা মনোনয়ন বিষয়ে বলেন, যদি কাউকে ম্যানেজ করার বিষয় থাকে, তা হলে হয়তো পরিবারের দিকে যেতে পারে। আবার আমরা যদি দীর্ঘমেয়াদি কৌশল অবলম্বন করি, তা হলে তরুণ কাউকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হতে পারে। আমাদের মনোনয়ন বোর্ডে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করা হবে।

উল্লেখ্য, গাইবান্ধা-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া গত ২২ জুলাই নিউইয়র্কের মাউন্ট সিনাই হাসপাতালে স্থানীয় সময় বিকাল ৪টায় (বাংলাদেশ সময় ২৩ জুলাই রাত ২টায়) চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2021 SomoyerKonthodhoni
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com