অন্য ভাষায় :
সোমবার, ০৭:১৯ অপরাহ্ন, ২০ মে ২০২৪, ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নোটিশ :
মানব সেবায় নিয়োজিত অলাভজনক সেবা প্রদানকারী সংবাদ তথ্য প্রতিষ্ঠান।
শিরোনাম :

অতিবৃষ্টিতে বদলে যাচ্ছে আরবের মরুভূমি!

সময়ের কণ্ঠধ্বনি ডেস্ক:
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৭ বার পঠিত

ছিল ধু ধু মরুভূমি। হয়ে গেল সবুজ ঘাসে ঢাকা মরূদ্যান। সৌদি আরবে ঘটেছে এমন কাণ্ড। বৃষ্টির কারণেই প্রকৃতির এই রূপবদল।

প্রথমবার দেখে স্থানীয় বাসিন্দারা চমকেই গিয়েছিলেন। মরুভূমির মাঝে সবুজ ঘাসে ঢাকা বিস্তীর্ণ ভূমি। তাতে ফুটে রয়েছে ছোট ছোট ফুল। দেখে অনেকেই বলছেন, প্রকৃতির কী ক্ষমতা, তা স্পষ্ট।

শুধু চোখের আরাম নয়, মরুভূমির মাঝে এই এক টুকরো সবুজ ভূমি পুরো এলাকার বাস্তুতন্ত্রেও বদল এনেছে। মরুভূমিতে এখন চরে বেড়াচ্ছে গবাদি পশুও।

কিন্তু কেন হঠাৎ এমন হলো? সাম্প্রতিক প্রচুর বৃষ্টি হয়েছে ওই মরুভূমিতে। সে কারণে মক্কা এবং মদিনার মাঝে মরুভূমির এই অংশ সবুজ হয়ে উঠেছে। বন্ধ্যা জমিতে গজিয়ে উঠেছে ঘাস।

সৌদি আরবের পশ্চিমাঞ্চলেই এমনটা হয়েছে।

বিশেষজ্ঞেরা জানিয়েছেন, অতিবৃষ্টিই এর কারণ। এমনিতে এই অঞ্চলে বৃষ্টি হয় না। সেখানে অতিবৃষ্টি হওয়ার জন্যই এমনটা হয়েছে। বৃষ্টির কারণে ভিজেছে মাটি, আর তাতেই জন্মেছে উদ্ভিদ।

এই সবুজ ভূমির ছবি বহু মানুষ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করেছেন। ছবিতে দেখা গেছে, সবুজ ঘাসে ঢাকা এলাকায় চরে বেড়াচ্ছে উট।

রুক্ষ জমির মাঝে এই সবুজ চোখে পড়ার মতো। অনেক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীই সেখানে তাঁবু খাটিয়ে থাকার ইচ্ছাপ্রকাশ করছে।

অনেকে আবার বলেছে, সেখান রিসোর্ট চালু করা উচিত।

২০২৩ সালের শেষ দিক থেকেই ওই এলাকা এভাবে সবুজ হয়ে উঠেছে। নভেম্বরে সৌদি আরবের পশ্চিমাঞ্চল ছাড়াও উত্তর সীমান্ত-সংলগ্ন আল-জাওয়াফ, হায়েল, আল-কাশিমে তুমুল বৃষ্টি হয়েছিল। সতর্কতা জারি করেছিল আবহাওয়া অফিস। এর ফলেই বৃদ্ধি পেয়েছিল সবুজ।

বিশেষজ্ঞেরা মনে করছেন, জলবায়ুর পরিবর্তনই এর প্রধান কারণ। সাম্প্রতিক অতীতে তাই বার বার সবুজ হয়ে উঠছে সৌদির মরুভূমি। ২০২৩ সালের জানুয়ারিতেও এই ঘটনা দেখা গিয়েছিল।

এমনিতেই সৌদি আরব প্রশাসন দেশে সবুজের মাত্রা বৃদ্ধির জন্য নানা প্রকল্প গ্রহণ করেছে। মরুভূমিতে বাঁচে এমন গাছ আরো বেশি করে রোপণ করে মরুভূমির আয়তন কমাতে চাইছে।

২০২১ সালে প্রশাসন একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করে। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০৩০ সালের মধ্যে মরুভূমিতে বাঁচে এমন ৪৫ কোটি গাছ লাগাবে প্রশাসন।

পাশাপাশি, বনভূমি সংরক্ষণেরও চেষ্টা চলছে। সৌদি আরবে ২৭ লাখ হেক্টর বনভূমি রয়েছে। কোনোভাবেই যেন সেগুলোকে মরুভূমি গ্রাস করতে না পারে, সে জন্য নানা পদক্ষেপ করা হয়েছে।

সৌদি আরবে ১৫টি এলাকা তাদের জীববৈচিত্রের জন্য সংরক্ষণের ব্যবস্থাও করা হয়েছে। তার মধ্যে ১২টি স্থলভাগে এবং তিনটি সমুদ্রের নিচে রয়েছে। দিনরাত চেষ্টা করে সৌদি প্রশাসন যখন বনভূমির আয়তন বৃদ্ধি করছে, তখনই মরুভূমির মাঝে তৈরি হলো মরূদ্যান।
সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2021 SomoyerKonthodhoni
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com